নিজ পদেই থাকছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজ পদেই থাকছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।  কোন কর্তৃত্ববলে তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদে আছেন- এর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়েরকৃত রিট খারিজ করে দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (২১ নভেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দিয়েছেন।  এর আগে রোববার (২০ নভেম্বর) বিকালে এ বিষয়ে শুনানি শেষ হয়।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান আহাদ ও অ্যাডভোকেট এরশাদ হোসেন রাশেদ।

রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়।  সঙ্গে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ আব্বাস উদ্দিন ও সামসুন নাহার লাইজু।

এ সময় রিটকারী ও রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৮ আগস্ট সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম শহরের জে এম সেন হলে জন্মাষ্টমী উৎসবের অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারকে টিকিয়ে রাখার জন্য যা যা করা দরকার সেটি করতে ভারত সরকারকে অনুরোধ করেছি।  আমি ভারতে গিয়ে বলেছি, শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে হবে।’

তার এমন বক্তব্যের পর দেশে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়।  পরে গত ২১ আগস্ট ‘বিতর্কিত’ এই বক্তব্যের জন্য আব্দুল মোমেনের পদত্যাগ চেয়ে আইনি নোটিশ পাঠান সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এরশাদ হোসেন রাশেদ।

এরপর গত ৫ সেপ্টেম্বর এরশাদ হোসেন রাশেদের পক্ষে আইনজীবী মোস্তাফিজুর রহমান আহাদ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদে থাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট করেন।  এতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ছাড়াও মন্ত্রিপরিষদ সচিবসহ দুইজনকে বিবাদি করা হয়।